পরীমনির চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

0
358

ঢাকা অফিস,গড়াইনিউজ২৪.কমঃ মাদকের মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনিকে চার দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত ।

আজ বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ এই আদেশ দেন। আগের দিন রাজধানীর বনানীতে পরীমনির বাসায় অভিযান চালিয়ে বর্তমান সময়ের আলোচিত–সমালোচিত এই চিত্রনায়িকাকে আটক করে র‍্যাব। পরে রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার নজরুল ইসলাম রাজকে আটক করা হয় ।

বৃহস্পতিবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন বলেন, পরীমনির বাসায় মিনি বার রয়েছে। মদের লাইসেন্স থাকলেও মেয়াদ পেরিয়েছে অনেক আগেই। পরীমনি, নজরুল রাজসহ এই চক্র ডিজে পার্টির আয়োজনের মাধ্যমে বিপুল অর্থ উপার্জন করত। এসব অর্থ তারা বিভিন্ন ব্যবসার কাজে লাগাত ।

এরপর বনানী থানায় পরীমনি ও নজরুল রাজের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক মামলা করে র‍্যাব। পরীমনির বিরুদ্ধে মামলায় তাঁর ম্যানেজার আশরাফুল ইসলামকে আসামি করা হয়। আর নজরুল রাজের সঙ্গে তাঁর ম্যানেজার সবুজ আলীকে আসামি করা হয়।

রাত সাড়ে আটটার দিকে পরীমনিকে আদালতে হাজির করে মাদকের এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে বনানী থানা–পুলিশ। শুনানি নিয়ে আদালত চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গতকাল বুধবার বিকেলে র‍্যাবের একটি দল পরীমনির বাসায় যায়। এ সময় ভেতর থেকে দরজা লাগিয়ে ফেসবুক লাইভে আসেন পরীমনি। লাইভে তিনি বলেন, দিনদুপুরে কে বা কারা তাঁর বাসায় আক্রমণ করেছে। তিনি থানা-পুলিশ, ডিবির কর্মকর্তা ও তাঁর পরিচিতজনদের কাছে ফোন করে তাঁকে বাঁচানোর আকুতি জানান। র‍্যাবের সদস্যরা বারবার পরিচয় দিলেও ভেতর থেকে দরজা খুলছিলেন না পরীমনি। পরে বিকেল ৪টা ৩৫ মিনিটে দরজা খুলে দেওয়া হলে র‍্যাবের সদস্যরা ভেতরে ঢোকেন। এরপর শুরু হয় তল্লাশি। একপর্যায়ের পরীমনিকে আটক করা হয়।

অভিযান শেষ র‌্যাবের পক্ষ থেকে বলা হয়, পরীমনির বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ ওয়াইন, আইস, এলএসডি ও মাদক সেবনের সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, সম্প্রতি হেলেনা জাহাঙ্গীর, মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌকে গ্রেপ্তারের ঘটনার ধারাবাহিকতায় পরীমনির বাসায় অভিযান চালানো হয়।

পরীমনি এর আগে গত জুনে রাজধানীর অদূরে বিরুলিয়ায় ঢাকা বোট ক্লাবে তাঁকে হত্যাচেষ্টা ও ধর্ষণচেষ্টা করা হয়েছে বলে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে আলোচনায় আসেন। পরে তাঁর মামলায় ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী ওরফে অমিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন এখন জামিনে মুক্ত।

বুধবার রাতে পরীমনিকে আটকের পর বনানী এলাকাতেই প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের কার্যালয়ে অভিযান চালায় র‍্যাব। সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ মদ ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয় বলে র‍্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়। আটকের পর রাতেই পরীমনি ও নজরুল রাজকে র‍্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়। সেখানে দুজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর বৃহস্পতিবার বিকালে সংবাদ সম্মেলন করেন র‍্যাবের মুখপাত্র খন্দকার আল মঈন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নজরুল রাজের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে তাঁর কম্পিউটারসহ কিছু ডিভাইস জব্দ করা হয়েছে। তাঁর মোবাইল ফোনও জব্দ করা হয়েছে। এগুলো থেকে বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও চিত্র পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে তাঁর বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি আইনেও মামলা করা হবে ।