ভেড়ামারায় নিরাময় ক্লিনিকে অনিয়মে ভরা!

0
91
গড়াইনিউজ২৪.কম:: কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা ভবনের সংলগ্ন নিরাময় ক্লিনিকের অনিয়ম চরমে উঠেছে। ইতিপূর্বেও একাধিক বার অভিযোগ করেও কোন পরিবর্তন হয় নি। সর্বশেষ গত বুধবার অনিয়ম ও ভুল সিজারিয়ান অপারেশনে শিশু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার ফারাকপুরের ফজলুর স্ত্রী মলি গত মঙ্গলবার (২০/১০/২০) দুপুর ১১টার সময় সিজারিয়ান অপারেশনের জন্য নিরাময় ক্লিনিকে ভর্তি হন। মলির এটি ২য় সিজার। এর আগে ১ম সন্তান জন্ম দেয়ার সময় সিজার করা হয়েছিল তাঁর। তখন থেকে জরায়ুতে টিউমারের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। রোগীর স্বজনেরা জানান, তাঁরা ডাক্তার বদরুল জামানকে দিয়ে অপারেশন করাতে চেয়েছিলেন। সেই অনুযায়ী টিউমার অপারেশন ও সিজার বাবদ ১৮ হাজার টাকা চুক্তি হয়। কিন্তু রাত ঘনিয়ে এলে ডাক্তার জামানের পরিবর্তে ডাঃ মোহাম্মদ আলীকে ডেকে এনে ওটিতে নেয়া হয় প্রসূতি মলিকে। জরায়ুতে বড় টিউমার থাকায় ও প্রয়োজনীয় সতর্কতার অভাবে ও রোগী অস্ত্রপচারকারী চিকিৎসকের তত্বাবধানে না থাকায় ঝুঁকি সম্পর্কে আগেভাগে না জানা থাকায় ডাক্তারের অপারেশনের পর নবজাতক মারা যায়। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ডাঃ মোহাম্মদকে কল দেয়ার আগে অন্ততঃ দুজন ডাক্তারকে ক্লিনিকে ডাকলেও রোগ বর্ণনা ও ঝুঁকি বিবেচনায় তাঁরা কৌশলে কেসটি হাতে নেন নি বলে জানা যায়। এদিকে সন্তান প্রসবের পর মৃতপ্রায় শিশুটিকে কুষ্টিয়া হাসপাতালে পাঠানোর নাটক মঞ্চায়ন করেন ডাক্তার ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। ডাক্তার মোহাম্মদ আলী কুষ্টিয়া মেডিকেল সংশ্লিষ্ট হওয়ার ক্লিনিক থেকে সরিয়ে আনা হয় ও কুষ্টিয়া হাসপাতালে নিয়ে মৃত দেখানো হয়। গতকাল শিশুটির লাশ সৎকারও করা হয়। এদিকে অবহেলার অভিযোগ অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, এনেসথেশিয়া ডাক্তারের মাধ্যমে এনেস্থিসিয়া না করে ইনজেকশনের মাধ্যমে অপারেশনটি পরিচালনা করা হচ্ছিল। ওটি বেডে প্রসূতি তাঁর দেহে কাটাকাটি শুরু হলে তীব্র ব্যাথা অনুভব করেন তিনি। ডাক্তারকে জানানোর পর আর কোন কিছু বলতে পারে না তিনি। প্রতিবেদক সরেজমিনে গিয়ে ক্লিনিক মালিক আবু বক্কর সিদ্দিক ও ম্যানেজার মজির উদ্দীনের সাথে কথা বললে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ রোগী ও পরিবারের সদস্যদের সাথে চুক্তি ও বিশ্বাস ভঙ্গ করার বিষয়ে তাঁরা কোন সদুত্তর দিতে পারেন নি। সংশ্লিষ্ট সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ আলীর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন ব্যস্ত পাওয়া যায়। উল্লেখ্য, নিরাময় ক্লিনিকের নানা অব্যবস্থাপনা নিয়ে প্রতিনিয়তই সংবাদ প্রকাশিত হলেও ক্লিনিকটিতে একের পর এক অনাকাংখিত ঘটনা/দূর্ঘটনা যেন নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসমস্ত অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

একটি উত্তর ত্যাগ