ফেনসিডিল খাওয়ার কথা বলে বন্ধুকে খুন

0
309

গড়াই নিউজ ২৪.কম:: যশোরের শার্শার ছোট বাবু ওরফে নূর জামাল হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড বলে জানিয়েছেন যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন সিকদার। তিনি শুক্রবার বিকেলে যশোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান। গ্রেপ্তাররা হলেন- ঝিকরগাছা উপজেলার মোবারকপুর গ্রামের আব্দুর রউফ ওরফে বাবুল ডাক্তারের ছেলে তাজরিয়ান মাহমুদ তুর্য্য, একই গ্রামের ইমরান রেজা খোকনের ছেলে তাহজীবুল বিশ্বাস ওরফে অক্ষয়, আব্দুর রহিমের ছেলে আবু জাফর, কামরুল ইসলামের ছেলে শাহীন হোসেন এবং একই উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন সিকদার বলেন, ৩১ জুলাই কালিয়ানী মাঠে একটি অজ্ঞাত যুবকের লাশ পায় পুলিশ। পরে লাশের পকেটে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার পরিচয় শনাক্ত করা হয়। এরপর মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার আসামিদেরকে বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর আসামিরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন সিকদার বলেন, ‘টাকা ও মোটরসাইকেল নিয়ে নিহত ছোট বাবুর সঙ্গে তুর্য্যর বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে আসামিরা ছোট বাবুকে সাতক্ষীরার দেবহাটা মাঝিপাড়া থেকে ৩০ জুলাই ডেকে নিয়ে আসে। এরপর ফেনসিডিল খাওয়ার কথা বলে শার্শার কালিয়াতিতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। তিনি বলেন, ‘নিহত ছোট বাবুর নামে ঢাকা ডিএমপি দারুস সালাম থানায় একটি মামলা রয়েছে। এছাড়া তার বড় ভাই বড় বাবুর নামে বিভিন্ন থানায় ১৬টি মামলা রয়েছে। বর্তমানে সে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে আটক রয়েছে।’

একটি উত্তর ত্যাগ