ছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় চাকরি গেল সেই শিক্ষকের

0
109

গড়াইনিউজ২৪.কম: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে সাজাপ্রাপ্ত শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল রোববার রাজশাহী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ওই শিক্ষককে বিদ্যালয় থেকে বরখাস্ত করার আদেশ দেন। এর আগে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের সুপারিশ করে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে চিঠি দিয়েছিলেন। সাজাপ্রাপ্ত শিক্ষক হলেন উপজেলার মোহাম্মদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বিপুল কুমার প্রামাণিক। অভিযোগ উঠেছে, গত শনিবার বিদ্যালয়ে ক্লাস চলাকালে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন বিপুল কুমার। ওই ছাত্রী কাঁদতে কাঁদতে শ্রেণিকক্ষ থেকে বের হয়ে যায় এবং পরিবারের সদস্যদের ঘটনাটি খুলে বলে। পরে এলাকার লোকজনও ঘটনাটি জানতে পারেন। কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে স্থানীয় লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে বিদ্যালয়ে ছুটে আসেন। এ সময় তাঁরা অভিযোগ ওঠা শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে বিদ্যালয় মাঠে বিক্ষোভ মিছিল করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে শিক্ষককে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে রেখে তালাবদ্ধ করে দেন সহকর্মীরা। বেলা দেড়টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাকিউল ইসলাম ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পরিবেশ শান্ত হয়। এ সময় চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির অনেক শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক ইউএনওর কাছে শিক্ষক বিপুল কুমারের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন। ইউএনও জাকিউল ইসলাম সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসান। আদালতে অভিযুক্ত শিক্ষক নিজের অপরাধ স্বীকার করলে তাঁকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। একই সঙ্গে বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকদের অন্যত্র বদলি ও পরিচালনা কমিটি বাতিলের আদেশ দেওয়া হয়েছে। গতকাল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানানো হয়। চিঠিতে শিক্ষক বিপুল কুমার প্রামাণিককে সাময়িক বরখাস্তের সুপারিশও করা হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ইউএনও জাকিউল ইসলাম বলেন, শিক্ষক বিপুল কুমার প্রামাণিককে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি গতকাল বিকেলে দপ্তরে পৌঁছেছে। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবদুস সালাম তাঁকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দিয়েছেন। সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ১৮ অনুসারে তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে এই সময়ে তিনি শিক্ষক বিধি মোতাবেক খোরাকি ভাতা পাবেন। বর্তমানে তিনি রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন। বাগমারা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ছিদ্দিকুর রহমানও একই কথা বলেছেন। শিক্ষক বিপুল কুমার প্রামাণিকের ছাত্রীদের যৌন হয়রানির খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক আলোচিত হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ