যে সকল হ্যান্ডসেট এবার মেতেছে ফাইভ জি নিয়ে

0
527

গড়াইনিউজ২৪.কম:: থ্রিজি ছাপিয়ে ফোরজিতে মেতেছে বিশ্ববাসী। কিন্তু ফোরজিরও বেলা শেষ হতে চললো বুঝি! বিশ্বের খ্যাতনামা টেলিকম সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো ফাইভ জি নিয়ে ইতোমধ্যে গবেষণা শুরু করেছে। তারা আশা করছে ২০১৯ সাল নাগাদ বিশ্বে ফাইভ জি টেলিকম নেটওয়ার্ক বিস্মৃত হতে। এরই মধ্যে হ্যান্ডসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো ফাইভ জি এনাবল হ্যান্ডসেট তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে। এদের মধ্যে এগিয়ে আছে এইচএমডি গ্লোবালের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান নকিয়া।

স্মার্টফোনে শীর্ষ চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান কোয়ালকমের সঙ্গে একজোট হয়ে ফাইভ জি ফোন উৎপাদনের পরিকল্পনা নিয়ে নকিয়া। যদি এই প্রক্রিয়া এখনো পরীকল্পনাধীন। প্রাথমিক স্তরে রয়েছে এটি।

কোয়ালকম জানিয়েছে, বিশ্বের শীর্ষ হ্যান্ডসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জোট বেঁধে ফাইভ জি প্রযুক্তি নিয়ে আসবে। এজন্য কোয়ালকম ফাইভ জি চিপসেট বানাবে। এজন্য আসুস, এইচএমডি গ্লোবাল(নকিয়া), এলজি, সনি, শার্প, শাওমি এবং জেডটিইর সঙ্গে কোয়ালকমের প্রাথমিক কথাবার্তা হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের ফোনে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন এক্স ৫০ ফাইভ জি এনআর মডেম ব্যবহৃত হবে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কোয়ালকম জানিয়েছে, ‘ফাইভ জির যুগে কোয়ালকম একচ্ছত্র অধিপতি হতে চায়। এজন্য কোয়ালকম ফাইভ জি মোবাইল চিপসেট তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে। ফাইভ জি ইকোসিস্টেম তৈরিতে হ্যান্ডসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কাজ করবে প্রতিষ্ঠানটি’।

ধারণা করা হচ্ছে ২০১৯ সালের শেষ নাগাদ বিশ্বের কয়েকটি দেশে ফাইভ জি মোবাইল নেটওয়ার্ক বিস্মৃত হবে।

ফাইভ জিতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মাল্টি-গিগাবাইট পার সেকেন্ড ডাটা ট্রান্সফার করা সম্ভব হবে। এই প্রযুক্তি মোবাইল ফোন ছাড়াও অগমেন্টেড রিয়েলিটি এবং ভার্চুয়াল রিয়েলিটি শিল্পে বিপ্লব ঘটাবে।

গড়াইনিউজ২৪.কম/মিরাজুল ইসলাম

একটি উত্তর ত্যাগ