লঞ্চ আটকে গেল চরে, সঙ্গে শুটিং ইউনিটও

0
947

গড়াইনিউজ২৪: চরে আটকে পড়েছে এমভি কর্ণফুলী ৯ তাকে উদ্ধার করতে এসেছে আরেকটি লঞ্চ
শনিবার রাতে ঢাকা থেকে ঠিক সময়েই ছেড়েছিল ভোলাগামী এমভি কর্ণফুলী ৯ নামের লঞ্চটি। কিন্তু রাত ১১টার পরে ঝড়বৃষ্টির কবলে পড়ে সেটা। সারেং লঞ্চটির নিয়ন্ত্রণ রাখতে না পেরে আটকে দেন চাঁদপুর জেলার মতলব থানার মদনপুরের এক চরে। সেখানেই লঞ্চটি আটকে থাকে প্রায় আট ঘণ্টা। অসংখ্য যাত্রীর সঙ্গে লঞ্চে ছিলেন অভিনেতা কচি খন্দকার, সোহেল খান, মারজুক রাসেল, দোলন, নির্মাতা সাইফ চন্দন ও আলম আশরাফসহ পুরো শুটিং ইউনিট।
ভোলা পৌঁছে আজ বিকেলে মুঠোফোনে কচি খন্দকার বলেন, ‘চেক মেট’ নামের একটি টেলিছবির শুটিংয়ের জন্য ইউনিট নিয়ে যাচ্ছিলেন নির্মাতা আলম আশরাফ। কিন্তু পথের মধ্যে চরে আটকে যাওয়ায় বেশ বিপদে পড়েন তাঁরা। ঠিক সময়ে শুটিং করা তো দূরে থাক, ভোলা পৌঁছাতেই দুপুর হয়ে যায়। আটকে যাওয়ার পর আরেকটি লঞ্চ এসে উদ্ধার করে যাত্রীদের।
আলম আশরাফ বলেন, ‘ভোর পাঁচটায় ভোলায় পৌঁছে সকাল নয়টায় শুটিং শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু দুপুর ১২টার পরে আমরা পৌঁছেছি। আর শুটিং শুরু করেছি বিকেল চারটায়। ইউনিটের সবাই বেশ ক্লান্ত। কিন্তু কিছুই করার নেই, ঈদের টেলিছবি, তাই ঠিক সময়ে কাজ শেষ করতে হবে।’
আটকা পড়েছিলেন কচি খন্দকার, সোহেল খান ও মারজুক রাসেলসহ পুরো ইউনিটআটকা পড়েছিলেন কচি খন্দকার, সোহেল খান ও মারজুক রাসেলসহ পুরো ইউনিটভোলায় শুটিং করার কারণটি ব্যাখ্যা করেন পরিচালক। ‘আসলে আমি ভোলার প্রাকৃতিক পরিবেশটা ধরতে চেয়েছি। এ কারণেই এই লোকেশনটা বেছে নেওয়া। আর আমার নিজের গ্রামের বাড়িও ভোলাতেই।’
তবে সবকিছুর শেষে ঠিকমতো ভোলা পৌঁছাতে পেরে আনন্দিত কচি খন্দকারসহ ইউনিটের সবাই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে এ অভিনেতা লিখেছেন, ‘…ভাগ্য সুপ্রসন্ন। টাইটানিকের মতো কোনো বেদনাদায়ক ঘটনা ঘটেনি।…স্বস্তির নিশ্বাস এখনই নিতে পারছি না। কারণ, আবার ঢাকায় ফিরতে হবে লঞ্চে।’
পরিচালক জানান, কাজ শেষ করে আগামী বুধ বা বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফিরবেন তাঁরা।

একটি উত্তর ত্যাগ