সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ থেকে সচেতন থাকার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

0
921

গড়াইনিউজ২৪.কম:: হাওরাঞ্চলের মানুষদেরকে এক সময় অনেকেই ‘ভাইট্টা গাবর’ বলে তাচ্ছিল্য করতো। কিন্তু সেই দিন এখন আর নেই বলে মনে করেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। তিনি জানান, শিক্ষা-দীক্ষা ও উন্নয়নে ভাটি বাংলার মানুষেরা এখন অনেকদূর এগিয়ে গেছে। সোমবার বিকালে কিশোরগঞ্জের ইটনায় এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন। উপজেলা সদরে অবস্থিত ‘সরকারি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কলেজের’ ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিস্ত্রীর্ণ এলাকাজুড়ে হাওরের অবস্থান। এসব অঞ্চলের মানুষেরা বরাবরই শিক্ষা-দীক্ষা ও উন্নয়নে পিছিয়ে ছিলেন। তবে সম্প্রতি হাওরাঞ্চলের রাস্তাঘাটের উন্নয়নসহ দীর্ঘমেয়াদী উন্নয়ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকার। এই উন্নয়নকাজ শেষ হলে ভাটি বাংলার চিত্র পাল্টে যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রতিকূল পরিবেশে প্রকৃতির সঙ্গে যুদ্ধ করে বেড়ে ওঠা ভাটি বাংলার মানুষেরা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রামী হয়ে ওঠেন। দেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এই ভাটি বাংলার মানুষ। ‘ভাটির শার্দুল’ হিসেবে পরিচিত আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসন থেকে সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এই এলাকার মাটি ও মানুষের সঙ্গে তিনি জড়িয়ে আছেন আষ্টেপৃষ্ঠে। রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরও তিনি প্রায়ই নিজ এলাকায় যান এবং নানা কর্মসূচিতে অংশ নেন।